online-tutor

Bottom Notice

× Primary Teacher Exam Related Books And Suggestion - Click Here !

Top Ads

Bottom Notification

bpsc.teletalk.com.bd

Online Application for 43 BCS লেখাটাতে ক্লিক করার পর General Cadre, Technical Cadre এবং Both Cadre এর রেডিও বাটন সম্বলিত তিনটি অপশন দেখতে পারবেন । 
যোগ্যতা ও পছন্দ অনুসারে যেকোন একটি রেডিও বাটন সিলেক্ট করে Apply বাটনে ক্লিক করতে 
হবে -  

Part - 1 : Personal Information -
▪️Applicant’s Name: 
 এস.এস.সি সার্টিফিকেট অনুসারে ক্যাপিটাল লেটারে নিজের নাম লিখুন
▪️Mother’s Name: 
এস.এস.সি সার্টিফিকেট অনুসারে ক্যাপিটাল লেটারে মাতার নাম লিখুন
▪️Father’s Name: 
এস.এস.সি সার্টিফিকেট অনুসারে ক্যাপিটাল লেটারে পিতার নাম লিখুন
▪️Date of Birth: লিখতে ভুল করলে আপনার প্রার্থীতা বাতিল হবে
এস.এস.সি সার্টিফিকেট অনুসারে জন্ম তারিখ লিখুন
▪️Gender: 
পুরুষ হলে Male, মহিলা হলে Female, হিজড়া হলে Third Gender
▪️Employment Status: 
যার ক্ষেত্রে যেটা প্রযোজ্য, সেটা সিলেক্ট করুন-
✓ বেকার হলে Not Employment, 
✓ রাজস্ব খাতের সরকারি চাকরি হলে Regular Basis under Revenue Budget, 
✓ স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানে হলে Autonomous or Semi-autonomous Organization, 
✓ বেসরকারি হলে Private Organization সিলেক্ট করুন। 
✓ চাকরিতে আছেন উল্লেখ করলে পরবর্তী সময়ে কর্তৃপক্ষের নিকট থেকে Non Objection Certificate (NOC) নিয়ে সেটা পিএসসিতে জমা দিতে হবে। অন্যথায় জমা দেওয়া লাগবে না

▪️Ethnic Minority: 
উপজাতি হলে Yes রেডিও বাটন চাপুন। অন্যথায় No বাটন চাপুন
▪️Freedom Fighter Status: 
মুক্তিযোদ্ধার সন্তান হলে Child of Freedom Fighter, নাতি বা নাতিনী হলে Grand Child of Freedom Fighter, মুক্তিযোদ্ধা কোটা না থাকলে Non Freedom Fighter সিলেক্ট করুন। যতটুকু জানি, কোটা সুবিধা নাই। এই অপশনটা রাখা হয়েছে শুধু বয়সের জন্য। যে সুবিধাটা ডাক্তাররাও ভোগ করেন।
▪️Marital Status:
বিবাহিত হলে Married রেডিও বাটন চাপুন। তারপর স্বামী বা স্ত্রীর নাম লিখুন। বিবাহিত ছাড়া অন্য যাই কিছু হোন না কেন, Single বাটন চাপুন
▪️Nationality:
বাংলাদেশি
▪️National ID:
জাতীয় পরিচয়পত্র থাকলে Yes রেডিও বাটন চাপুন এবং পরিচয়পত্র নম্বর দিন। পরিচয়পত্র না থাকলে No রেডিও বাটন চাপুন। পরবর্তীতে পরিচয়পত্র পেলে আবেদন করে পিএসসিতে জমা দিবেন
▪️Disability:
প্রতিবন্ধী না হলে None বাটন চাপুন। দৃষ্টি প্রতিবন্ধী হলে Visually Disabled বাটন চাপুন। শারীরিক প্রতিবন্ধী হলে Physically Disabled বাটন চাপুন।
▪️Height: 
উচ্চতা সেন্টিমিটারে লিখুন ।  অনলাইনে Convert করে নিন Foot to cm
▪️Weight: 
নিজের ওজন পরিমাপ করে তথ্য দিয়ে দিন
▪️Present Address: 
আপনি যে ঠিকানায় চিঠিপত্র পেতে চান, সেই ঠিকানার প্রযত্নে, গ্রাম, জেলা, উপজেলা, ডাকঘর এবং ডাকঘরের কোড ক্যাপিটাল লেটারে লিখুন। চূড়ান্তভাবে সুপারিশ পাওয়ার পর বর্তমান ঠিকানায় পুলিশ ভেরিফিকেশন হবে।
▪️Permanent Address: 
স্থায়ী ঠিকানার প্রযত্নে, গ্রাম, জেলা, উপজেলা, ডাকঘর এবং ডাকঘরের কোড ক্যাপিটাল লেটারে লিখুন। চূড়ান্তভাবে সুপারিশ পাওয়ার পর স্থায়ী ঠিকানায় পুলিশ ভেরিফিকেশন হবে।
..যেহেতু বর্তমান ও স্থায়ী উভয় ঠিকানায়ই হয়, তাই বর্তমান ঠিকানা আর স্থায়ী ঠিকানা এক দেওয়া ভালো। তাতে ঝামেলা কম হবে। মেয়েরা নিজের সুবিধামতো বাবার বাড়ি বা স্বামীর বাড়ির ঠিকানা ব্যবহার করতে পারেন।
▪️Contact Mobile: 
যে মোবাইল নম্বরে পরীক্ষা সংক্রান্ত এসএমএস পেতে চান, সেই মোবাইল নম্বর লিখুন। কোন সমস্যা হলে কর্তৃপক্ষ যাতে আপনার সাথে যোগাযোগ করতে পারে সেজন্য নিজের নম্বর ব্যবহার করাই ভালো।
..Re-type Mobile: আবার একই মোবাইল নম্বর দিন।
▪️Exam Centre: 
আপনি যে কেন্দ্রে পরীক্ষা দিতে চান, সেই কেন্দ্র সিলেক্ট করুন। এখন এক্সাম সেন্টার যেটা দিবেন, সেই সেন্টারেই প্রিলিমিনারি ও রিটেন পরীক্ষা দিতে হবে। পরবর্তী সময়ে কেন্দ্র পরিবর্তন করার কোন সুযোগ নাই।
▪️Question Version: 
প্রিলিমিনারি পরীক্ষা যদি ইংরেজি মাধ্যমে দিতে চান, তাহলে এই ঘরে ক্লিক করুন। অন্যথায় ক্লিক করবেন না। কারণ পরবর্তী সময়ে ভার্সন পরিবর্তন করতে পারবেন না।

 উপরের সকল তথ্য সঠিক দিয়েছেন মর্মে প্রত্যয়ন দিয়ে Next বাটনে ক্লিক করলে 
 
Part - 2 : Educational Qualifications
▪️SSC or Equivalent: 
 সার্টিফিকেট অনুসারে পরীক্ষার নাম, বোর্ড, রোল, রেজাল্ট, গ্রুপ এবং পাসের সাল লিখুন
▪️HSC or Equivalent:
 সার্টিফিকেট অনুসারে পরীক্ষার নাম, বোর্ড, রোল, রেজাল্ট, গ্রুপ এবং পাসের সাল লিখুন।
..মনে রাখবেন, SSC এবং HSC এর ক্ষেত্রে বোর্ড ও গ্রুপের ঘরে যদি কেউ Others অপশন পূরণ করে তাহলে লিখিত পরীক্ষার ফল প্রকাশের পর পিএসসি'র পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক (ক্যাডার) কে লিখিতভাবে জানাতে হবে
▪️Graduation: 
সার্টিফিকেট অনুসারে পরীক্ষার নাম, বিষয়, রেজাল্ট, পাসের সাল এবং কত বছর মেয়াদী কোর্স সেটা লিখুন। যারা অ্যাপিয়ার্ড দিয়ে আবেদন করছেন, তারা পরীক্ষা শুরু ও শেষের তারিখ লিখুন। মনে রাখবেন, ২০১৭ সালের পরীক্ষা সেশনজটের কারণে ২০১৯ সালে অনুষ্ঠিত হলেও আপনার পাসের সাল ২০১৭
▪️Masters:
প্রযোজ্য হলে টিক চিহ্ন দিন। তারপর সার্টিফিকেট অনুসারে পরীক্ষার নাম, বিষয়, রেজাল্ট, পাসের সাল এবং এবং কত বছর মেয়াদী কোর্স সেটা লিখুন মনে রাখবেন, Graduation এবং Masters এর ক্ষেত্রে বিষয়ের ঘরে যদি কেউ Others পূরণ করেন তাহলে প্রিলিমিনারি পরীক্ষার ফল প্রকাশের পরপর পাঁচ কর্মদিবসের মধ্যে পিএসসি'র পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক (ক্যাডার) কে লিখিতভাবে জানাতে হবে
▪️Additional Qualification for Teachers’ Training College: 
প্রযোজ্য হলে টিক চিহ্ন দিন । 
সার্টিফিকেট অনুসারে পরীক্ষার নাম, প্রতিষ্ঠানের নাম, রেজাল্ট এবং পাসের সাল লিখুন
▪️Post Related Subjects: 
শুধু টেকনিক্যাল ও বোথ ক্যাডারদের জন্য এই অপশনটা প্রযোজ্য, জেনারেলদের জন্য না। আপনার সাবজেক্ট সিলেক্ট করুন

সকল তথ্য সঠিক দিয়েছেন মর্মে প্রত্যয়ন দিয়ে Next বাটন চাপুন-
 
Part - 3 : Cadre Option 
ক্যাডার চয়েস দেওয়া শুরু করুন -
  • ▪️আপনার যোগ্যতা, পছন্দ ও স্বপ্ন অনুযায়ী ক্যাডার চয়েস দিন। বিভিন্ন ক্যাডারের সুবিধা এবং অসুবিধা নিয়ে আমার একটা লেখা আছে। পড়ে দেখতে পারেন। ধারণা পাবেন। যতগুলো ক্যাডার চয়েস দেওয়া যায়, সবগুলোই দেবেন। তবে যে ক্যাডারে চাকরি হলে যোগদান করবেন না, সেই ক্যাডার চয়েস দেওয়ার কোন দরকার নাই। বিসিএসের ক্যাডার চয়েসঃ সঠিক ক্যাডার পছন্দক্রম কিভাবে নির্ধারণ করবেন (Click Here !)
  • তথ্য সঠিক দিয়েছেন মর্মে প্রত্যয়ন দিয়ে Next বাটন চাপুন
Application Preview
যেসব তথ্য দিয়েছেন সেগুলো এই পেজে দেখাবে। তথ্যগুলো যাচাই করুন। কোথাও সংশোধনের দরকার হলে সংশোধন করুন । পরবর্তী সময়ে আর সংশোধন করতে পারবেন না।
▪️Validation Code:
 যেসব ডিজিট বা লেটার দেখা যায়, সেগুলো পাশের বক্সে লিখুন
▪️Upload Photo: 
  • তিন মাসের আগের তোলা নয় এমন ৩০০×৩০০ পিক্সেলের এক কপি রঙিন ছবি আপলোড দিন ।
  • ছবির সাইজ যেন ৮০ কিলোবাইটের বেশি না হয় । 
  • মনে রাখবেন, সানগ্লাস পড়া, মুখ ও কান ঢাকা ছবি গ্রহনযোগ্য নয়।
▪️Upload Signature: 
  • ৩০০×৮০ পিক্সেলের যেমন ইচ্ছা তেমন একটা স্বাক্ষর আপলোড দিন। 
  • স্বাক্ষরের সাইজ যেন ৬০ কিলোবাইটের বেশি না হয়। 
  • মনে রাখবেন, এখন যেই স্বাক্ষর দিচ্ছেন, চুড়ান্ত সুপারিশের আগে পর্যন্ত একই স্বাক্ষর দিতে হবে সব ডকুমেন্টেই।
  • সকল তথ্য সঠিক এই মর্মে প্রত্যয়ন দিয়ে Submit the Application বাটনে ক্লিক করুন । 
  • এতে আপনি USER ID সম্বলিত একটি Applicant's Copy পাবেন। 
  • ডাউনলোড করে সংরক্ষন করুন।
উক্ত USER ID ব্যবহার করে নির্দেশনা অনুযায়ী টেলিটক সিম ইউজ করে পরীক্ষার ফি জমা দেবেন। পরীক্ষার ফি জমা দেওয়া হলে আপনাকে ফিরতি এসএমএসে একটি Password দেওয়া হবে। 
উক্ত USER ID এবং Password ব্যবহার করে প্রবেশপত্র ডাউনলোড করে নিবেন এবং সংরক্ষণ করবেন।
 
মনে রাখবেন, ভুলের কারণে বা অন্য যেকোনো কারণে কোন প্রার্থী একাধিকবার ফরম পূরণ করলে এবং ভুল কোন তথ্য দিলে সেই প্রার্থীর সকল আবেদনই বাতিল হবে। এমনকি পিএসসির সকল পরীক্ষায় অযোগ্যসহ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হতে পারে। একান্তই যদি নতুন করে ফরম পূরণ করতে হয় তাহলে পিএসসি'র পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক (ক্যাডার) বরাবর আবেদন দিয়ে আগেরটা বাতিল করতে হবে।

Close

Post a Comment

Use Comment Box ! Write your thinking about this post and share with audience.

Previous Post Next Post

Sponsord


Author sign up !

Sponsord

Help:

FAQs:

How to download any file from this website ?

You can download all the files on our site. We usually share the link of Google Drive from here you can securely and very quickly collect any PDF or all other files. One more thing to keep in mind is that this site does not post any kind of fake download, so wherever you see PDF download or file download, remember that you can download your desired PDF or other files from that post. Each download button has a timer attached. Basically, it takes some time for the files to be ready, so the download timer is given. There may be some automatic download timers, in which case there is nothing to be afraid of when you see the timer. There will be no accident when the timer runs out. Wait there with some of your precious time.

এই ওয়েবসাইট থেকে যেকোনো ফাইল কিভাবে ডাউনলোড করবেন ?

অনেকে আছেন যারা অযথা কমেন্ট করে জিজ্ঞাসা করেন কিভাবে ডাউনলোড করব তাদের উদ্দেশে বলে দেয় আমাদের এই সাইটের সকল ফাইল আপনি অবশ্যই ডাউনলোড করতে পারবেন । আমরা সাধারণত গুগোল ড্রাইভ এর লিংক শেয়ার করে থাকি এখান থেকে আপনি নিরাপদ এবং খুব দ্রুত যেকোনো পিডিএফ বা অন্যান্য সকল ফাইল সংগ্রহ করতে পারবেন । আর একটি কথা বলে রাখা দরকার এই সাইটটি কোন প্রকার ফেইক ডাউনলোড পোস্ট করে থাকে না সুতরাং যেখানে দেখবেন পিডিএফ ডাউনলোড বা ফাইল ডাউনলোডের কথা বলা আছে মনে রাখবেন আপনি অবশ্যই সেই পোষ্টটি থেকে আপনার কাংখিত পিডিএফ বা অন্যান্য ফাইল গুলো ডাউনলোড করে নিতে পারবেন । প্রতিটি ডাউনলোড বাটনে একটি টাইমার সংযুক্ত করা আছে । মূলত ফাইল গুলো প্রস্তুত হতে বেশ কিছুটা সময় লাগে সেকারণে ডাউনলোড টাইমার দেওয়া হয় । কিছু কিছু স্বয়ংক্রিয় ডাউনলোড টাইমার থাকতে পারে, সেক্ষেত্রে টাইমার দেখলে ভয় পাবার কিছু নেই টাইমার শেষ হলে কোন দুর্ঘটনা ঘটবে না আপনার মুল্যবান সময়ের কিছুটা দিয়ে সেখানে অপেক্ষা করুন টাইমার পুরোপুরি শেষ হলে ডাউনলোড বাটন পেয়ে যাবেন ।

Author sign up !

যারা বিভিন্ন বিষয়ের উপর লিখতে পছন্দ করেন এবং আপনার লিখিত সৃষ্টিকর্ম প্রকাশ করতে চাচ্ছেন তারা এই ওয়েবসাইটের একজন লেখক হিসেবে বিনামূল্যে যোগদান করতে পারেন । লেখক হিসেবে যোগদান করে আপনার লেখাগুলো এই ওয়েবসাইটে পোস্ট করুন । Author sign up !